মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

বার্তা

মেঘনা, ঘোড়াউত্রা, ব্রহ্মপুত্র, ধলেশ্বরী নদী এবং অসংখ্য খাল-বিল হাওড় বাওড় বিধৌত বৈচিত্রময় ভূ-প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের এক সমৃদ্ধ ও প্রাচীন জনপদ বাজিতপুর। বাংলেদেশের ভাটি অঞ্চল বাজিতপুর থেকেই শুরু হয়েছে বলে একে ‘ভাটি অঞ্চলের প্রবেশদ্বার’ বলা হয়। ব্যবসা-বাণিজ্য, শিক্ষা-সংস্কৃতি, কৃষি, ঐতিহ্য, কৃষ্টি-সাহিত্যের দিক দিয়ে বাজিতপুরের রয়েছে গৌরবোজ্জল ইতিহাস। ১৭৭৮খ্রিঃ প্রকাশিত রেনেলের ম্যাপে ময়মনসিংহ কিংবা কিশোরগঞ্জের নাম উল্লেখ না থাকলেও বাজিতপুরকে গুরুত্বপূর্ণ স্থান হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। একসময় বাজিতপুরের মসলিন বিশ্বব্যাপী সমাদৃত ছিল। মহান মুক্তিযুদ্ধেও বাজিতপুরের রয়েছে সংগ্রামী ইতিহাস। বাংলার বার ভূঁইয়ার অন্যতম নবাব ঈশা খাঁর অধঃস্থন পঞ্চম পুরুষ ভাগলপুরের ঐতিহ্যবাহী দেওয়ানবাড়ীর প্রতিষ্ঠাতা দেওয়ান আদম খাঁর উত্তরসুরী সূফী সাধক মঞ্জব আউলিয়া দেওয়ান আহাম্মদ রেজা ওরফে পাগলা দেওয়ান, বাংলাদেশের অন্যতম শীর্ষ ধনী ও দানশীল ব্যক্তিত্ব ইসলাম গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলহাজ্জ জহুরুল ইসলামসহ অনেক কীর্তিমান গুণী জনসেবকের অম্লান কীর্তিতে ধন্য বাজিতপুর উপজেলা।

বাজিতপুরের হাওড়ের নিম্নভূমির পলি মাটিতে বছরে একবার হলেও বোরো ধানের ফলন বেশী। আবার উচ্চ ভূমি ধান, পাট, রবিশস্যের জন্য খুবই উপযোগী। অসংখ্য অল-বিল , হাওড়-পুকুর থাকায় বাজিতপুর মৎস্য সম্পদে সমৃদ্ধ। এছাড়া পল্ট্রি শিল্পেও বেশ এগিয়ে রয়েছে এ অঞ্চল।

কিশোরগঞ্জ জেলার জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ আজিমুদ্দিন বিশ্বাস মহোদয় সার্বিক দিক নির্দেশনা দিয়ে আমাদের সহযোগিতা করায় তাঁকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।উপজেলা ওয়েব পোটাল কমিটির আহবায়ক ও সদস্যগণসহ সকল বিভাগের কর্মকর্তাগণকে, সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, স্থানীয় সুধীজন এবং আমার সহকর্মীবৃন্দ ডিজিটার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে ওয়েব পোটালে তথ্য প্রেরণে নিরলসভাবে পরিশ্রম করেছেন এবং সার্বিকভাবে আমাকে সহযোগিতা করেছেন, এজন্য তাদেরকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।                                         

 

                                                                                                                                                         ভাস্কর দেবনাথ বাপ্পি

                                                                                                                                                      উপজেলা নির্বাহী অফিসার

                                                                                                                                                       বাজিতপুর, কিশো্রগঞ্জ।

ছবি


সংযুক্তি